জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবৈধ পথে নয়, বৈধ পথে মালয়েশিয়া যান

0
409

বাংলাদেশে থেকে অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবৈধপথে মালয়েশিয়া যাচ্ছেন। তাদের জন্য এবার উন্মোচিত হলো বৈধপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার সুযোগ। আমাদের মালয়েশিয়া প্রতিনিধি এমনই এক সুযোগের তথ্য জানাচ্ছেন মালয়েশিয়া যেতে ইচ্ছুক বাংলাদেশীদের জন্য।
মালয়েশিয়ায় জিটুজি প্লাস কলিং ভিসায় যেতে পারবেন বাংলাদেশের যেকোন জেলার বাসিন্দারা। এই ভিসার আওতায় নিন্মোক্ত কাজ করা যাবে:
ফ্যাক্টরি ওয়ার্কার অপশনে আছে
১। ফার্ণিচার ফ্যাক্টরী
২। ইলেকট্রিক ফ্যাক্টরী
৩। শপিংমল
৪। রেস্টুরেন্ট
৫। প্যাকেজিং
৬। কন্সট্রাকশন
৭। পোল্ট্রি ফার্ম
প্লান্টেশন ওয়ার্কার অপশনে আছে
১। এগ্রিকালচার
২। নার্সারি
৩। পাম বাগান
সার্ভিস সেক্টর ওয়ার্কার অপশনে আছে ১। রেস্টুরেন্ট
২। হোটেল
৩।সুপার শপ
৪। থিমপার্ক
৫। ক্লিনার
কন্সট্রাকশন লেবার ওয়ার্কার অপশনে আছে
১। হাউস বিল্ডিং
২। ব্রিজ কালভার্ড
৩। রোড, ফ্লাইওভার
৪। ড্রেন আণ্ডারগ্রাউন্ড
ওভারটাইম সাধারন দিন: বেসিক-এর দেড় গুণ
বাসস্থান+যাতায়াত= কোম্পানি বহন করবে
ডিউটি আওয়ার: ৮ ঘণ্টা (সপ্তাহে ১দিন ছুটি)
জব কনট্রাক্ট: ভিসা কন্টাক্ট ৩ বছর সহ মোট ১০ বছর (কোম্পানী রিনিউএবল)
সময়: ৭-৮ দিনে মেডিকেল ফিট কার্ড, পরবর্তী ১০-১৫ দিনে নিশ্চিত কলিং/ভিসা, পরবর্তী ১০-১৫ দিনে ফ্লাইট।(মাত্র ৪৫+- কর্মদিবসে ফ্লাই)
বয়স: ১৮ থেকে ৪৫ বছর
অভিজ্ঞতা: প্রয়োজন নেই।
প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট:পাসপোর্ট+ ১২কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি (সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড) নমিনীর (ফার্স্ট ব্লাড) ন্যাশনাল অাই ডি কার্ড ও ১ কপি ছবি।
আবেদনের প্রক্রিয়া:১। আগ্রহী প্রত্যেক যাত্রীকে সর্বপ্রথম ফিঙ্গারপ্রিন্ট/অনলাইনের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।২,মালয়েশিয়া অনুমোদিত যেকোন মেডিকেল সেন্টার হতে মেডিকেল টেস্ট (স্বাস্থ্য পরীক্ষা) সম্পন্ন করতে হবে।
৩। মেডিকেলে ফিট হলে অনলাইনের মাধ্যমে ভিসার জন্য আবেদন করা হবে। আবেদন করার দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যে ভিসা সংগ্রহ করা যাবে।
৪। ফিঙ্গারপ্রিন্ট/ম্যানপাওয়ার অনুমোদন ও স্টিকার নিয়ে ফ্লাইট হবে।
আমার বিজ্ঞাপনে ভিসার লিষ্ট ও সব তথ্য দেওয়া আছে,আপনি কোন ধরনের ভিসা চান সে হিসেবে ভিসার দাম হবে।
প্রথমে মেডিকেল করতে হবে,তাতে টাকা পেমেন্ট  ৮হাজার টাকা ও ট্রেনিং এর ৫হাজার টাকা। মেডিকেল পাস করার পরে(মেডিকেল পাস করা বাধ্যতামুলক) ২০হাজার টাকা পেমেন্ট করতে হবে কলিং ভিসার জন্য। ৩সপ্তার মধ্যে ভিসা চলে আসবে।ভিসার ফটোকপি দিলে,ভিসা চেক করে পেমেন্ট করতে হবে  টাকা আর বাকি সব টাকা ফ্লাইর সময়। ৪৫+- দিনের মধ্যে ফ্লাই,ইনসাল্লাহ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here