বড়লেখা-কুলাউড়া সড়কের গর্তে ট্রাক আটকা, সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

0
160

বড়লেখা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা-কুলাউড়া আঞ্চলিক মহাসড়কের হাতলিঘাট নামক স্থানে মালবাহী ট্রাক গর্তে আটকে বুধবার রাত থেকে জেলা সদরের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ট্রাক দুটি সরানো সম্ভব না হওয়ায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। গতকাল বুধবার দিবাগত রাত এবং আজ বৃহস্পতিবার সকালে দু’দফা ৪টি ট্রাক আটকে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এতে সড়কের উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

সরেজমিনে ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে বড়লেখা-কুলাউড়া আঞ্চলিক মহাসড়কের হাতলিঘাটসহ অন্তত ১০টি স্থ’ানে বন্যার পানি থাকায় সড়কে অসংখ্য স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় ঝুঁকি নিয়ে সড়কে যানবাহন চলছে। এসব গর্তে প্রায়ই ছোটবড় গাড়ি আটকা পড়ছে। গত দুই তিন দিন আগে সড়ক থেকে বন্যার পানি নেমে যাওয়ায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছিল।

গতকাল বুধবার রাত ১১টার দিকে মালবাহী দুইটি ট্রাক সড়কের গর্তে আটকা পড়ে। এগুলো বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে সরানোর পর আবারও বেলা ১২টার দিকে আরো দুইটি মালবাহী ট্রাক একই স্থানের  গর্তে আটকা পড়ে। ফলে সড়কের উভয় পাশে তীব্র যানযটের সৃষ্টি হলে যাত্রীরা সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ট্রাক দুটি সরানো সম্ভব না হওয়ায় যানচলাচল বন্ধ রয়েছে।

হবিগঞ্জ থেকে চাল নিয়ে বড়লেখায় যাচ্ছিলেন ট্রাকচালক শাহাদাৎ আলী। তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে বলেন, ‘গত রাত ৩টা থেকেই এখানে আটকা পড়েছি। দুইটি ট্রাক সরানো হলেও আরো দুইটি ট্রাক এখনো সরানো হয়নি। সড়কের অবস্থাও খারাপ। খুব বিরক্ত লাগছে।’

বড়লেখা ট্রাফিক পুলিশের এটিএসআই জহিরুল ইসলাম ট্রাক আটকে যোগাযোগ ব্যাহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে যানজট নিরসনে আমাদের ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা কাজ করছে। ট্রাক দুটি সরানোর চেষ্টা চলছে।’

সওজ মৌলভীবাজার কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ বলেন, ‘ঘটনাস্থলে  লোকজন কাজ করছে। ট্রাক দুটি সরানো হলে শুক্রবার সড়কে কাজ শুরু হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here