সরকার জনগনের আকাংখা ও প্রয়োজনীয়তাকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে- ডিসি মো: আসলাম হোসেন

কুষ্টিয়ায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার বাজারে পেঁয়াজের ঘাটতি রাখবো না। এই জেলায় পেঁয়াজের উর্ধ্বমূল্যে নিম্নমুখি করা হয়েছে। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি করে ফায়দা লুটতে চেয়েছিলো। আমরা সেখানে আইন প্রয়োগ করেছি। গতকাল সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়া কালেক্টরেট চত্ত্বরে পেঁয়াজ বিক্রয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন একথা বলেন। তিনি আরও বলেন, টিসিবির মাধ্যমে মাত্র ৪৫ টাকায় মাথাপিছু ১ কেজি করে মোট ২ হাজার ব্যক্তিকে দুইটন পেঁয়াজ দিনব্যাপী বিক্রয় করা হবে। যা এখন থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু করা হলো। বর্তমান সরকার জনগনের আকাংখা এবং প্রয়োজনীয়তাকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তারই অংশ হিসাবে পিঁয়াজের কাছে নয়, পিঁয়াজই ক্রেতা সাধারণের কাছে ছুটে এসেছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাদ জাহান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফুন নাহার, এনডিসি এ.বি.এম. আরিফুল ইসলাম, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসির সভাপতি আলহাজ্ব রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব সহ প্রশাসন, গণমাধ্যমকর্মী ও ক্রেতা সাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়ার বাজারে সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুর থেকে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়। পেঁয়াজের দাম বাড়ার পর এই প্রথম কুষ্টিয়াতে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছে টিসিবি।

পরে পেঁয়াজ কেনার জন্য ক্রেতাদের লম্বা লাইন হয়ে যায়। ট্রাক পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে পেঁয়াজ কেনার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়েন বিভিন্ন পেশার মানুষ। এসময় ক্রেতাদের উদ্দ্যেশে জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন বলেন, প্রথমবারের মতো কুষ্টিয়ায় টিসিবির মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। প্রতিদিন এখানেই ২টন পেঁয়াজ বিক্রি হবে। কেজিপ্রতি ৪৫ টাকা দরে একজন ব্যক্তি ১কেজি করে পেঁয়াজ কিনতে পারবেন এখান থেকে। তিনি আরো বলেন, বাজারে পেঁয়াজের দাম না কমা পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলমান থাকবে। প্রয়োজন হলে আগামীতে একইভাবে আরো বেশি পরিমান পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে। আশা করছি দ্রুতই বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে আসবে। উল্লেখ্য, কুষ্টিয়ার বাজারে পেঁয়াজ’র কেজি এখনও দেড়শ’ টাকার বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *